• ১২ এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২৯ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সকল পাবলিক বিশবিদ্যালয়ের হল খুলে পরীক্ষা নেয়ার দাবি ছাত্র মৈত্রীর

0

আজ রবিবার সকাল ১১টায় শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচীর মাধ্যমে এ দাবি তোলে বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সংগঠনের সভাপতি কাজী আব্দুল মোতালেব জুয়েলের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অতুলন দাস আলোর সঞ্চালনায় উক্ত মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় শাখার প্রাক্তন সভাপতি ও নির্বাচিত সিনেট সদস্য সাদাকাত হোসেন খান বাবুল। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি রাশেদুল ইসলাম খান, সহ-সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম খান শিশির প্রমুখ। দাবির সাথে সংহতি বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (বিসিএল)-এর সভাপতি গৌতম শীল।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাদাকাত হোসেন খান বাবুল বলেন, “সম্প্রতি সময়ে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়, ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়, শাবিপ্রবি সহ কয়েকটি বিশ^বিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা নেয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটি ভাল উদ্যোগ। কিন্তু সেই ভাল উদ্যোগের গুড়ে বালি হয়, যখন শিক্ষার্থীদের সুবিধা-অসুবিধা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যাপারটি বিবেচনায় না নিয়ে উদ্যোগটি গৃহীত হয়। একটি বিশ^বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র হিসাবে বর্তমান প্যানডেমিক সিচ্যুয়েশনে বিশ^বিদ্যালয়গুলোর এমন বিমাতাসুলভ সিদ্ধান্তকে আমার কাছে চরম হঠকারী, অবিবেচনাপ্রসূত এবং একপাক্ষিক মনে হয়েছে। বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিত শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে স্বাস্থ্যবিধি, পর্যাপ্ত চিকিৎসক নিয়োগ ও সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করে হল খুলে দেয়া এবং তারপর পরীক্ষা গ্রহন করা।”

সংগঠনের সভাপতি কাজী আব্দুল মোতালেব জুয়েল বলেন, “করোনাকালীন সময়ে বিশ^বিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারণে শিক্ষার্থীদের দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিজ বাড়িতে অবস্থান করতে হয়েছে। অধিকাংশ শিক্ষার্থীর নিকট প্রযুক্তি ও উচ্চগতির ইন্টারসেবা না থাকায় তারা অনলাইন শিক্ষার সুযোগ অনেকাংশেই নিতে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে তাদের জন্য পরীক্ষা গ্রহনের পূর্বে সব কোর্সের রিভিউ ক্লাস নিতে হবে। একইসাথে অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ^বিদ্যালয়ের বাসে যাতায়াত নিশ্চিত করতে হবে।”

উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অদিতি আদৃতা সৃষ্টি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তানভীন আহমেদ, সাহিত্য, সাংস্কৃতিক ও ক্রিড়া সম্পাদক সুমাইয়া পারভীন ঝরা, কেন্দ্রীয় সদস্য ফাহিম মুনতাসির প্রমুখ।

 

Share.