• ৮ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ২৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমদের মৃত্যুতে ওয়ার্কার্স পার্টির শোক

0

বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমদের মৃত্যুতে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। আজ শনিবার ১৯ মার্চ সকাল ১০টায় ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।
১৯৯০ সালের ১৪ জানুয়ারি তাকে বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি নিয়োগ করা হয়। ওই বছরের ৬ ডিসেম্বর স্বৈরাচারী এরশাদ বিরোধী গণ-আন্দোলনের মুখে তৎকালীন উপরাষ্ট্রপতি মওদুদ আহমদ পদত্যাগ করেন এবং বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমদকে উপ-রাষ্ট্রপতি নিয়োগ করা হয়। ওই দিনই রাষ্ট্রপতি এরশাদ পদত্যাগ করে উপরাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দীন আহমদের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন। এর ফলে ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি হিসেবে তিনি সরকার প্রধানের দায়িত্ব লাভ করেন। ১৯৯১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তার নেতৃত্বে দেশে একটি সাধারণ নির্বাচন সম্পন্ন হয়, যা দেশে-বিদেশে ব্যাপক প্রশংসা পায়।
সাহাবুদ্দীন আহমদের পরামর্শক্রমে দেশের সংবিধানের ১১তম সংশোধনীটি আনা হয়। এর ফলে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালনের পরও তিনি ১৯৯১ সালের ১০ অক্টোবর প্রধান বিচারপতির দায়িত্বে সুপ্রিম কোর্টে ফিরে যান এবং ১৯৯৫ সালের ১ ফেব্রুয়ারি প্রধান বিচারপতির পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর এই দলের প্রার্থী হিসেবে সংসদীয় সরকার পদ্ধতিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন সাহাবুদ্দীন আহমদ। ২০০১ সালের ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত তিনি সেই দায়িত্ব পালন করেন।
বিবৃতিতে তাঁরা বলেন, বিচারপতি সাহাবুদ্দিন আহমেদ স্বৈরাচার এরশাদের পতনের পর গণ-অভ্যুত্থান পরবর্তী সেই টালমাটাল দিনে জাতির অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর যুগান্তরকারি অবদান দেশের সংসদীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে যা জাতি চিরদিন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। নেতৃবৃন্দ শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমাবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

Share.