• ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মে দিবসে শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান ‘অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা’ নামে শ্রমিকের ধর্মঘটের অধিকার কেড়ে নেয়া চলবে না, জাতীয় নিম্নতম মুজরি ২০ হাজার টাকা ঘোষণা কর …জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন

0

মহান মে দিবসের ১৩৭তম বার্ষিকীতে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন-এর একটি সমাবেশ তোপখানা রোডে, অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি কামরূল আহসান। সমাবেশে মূল বক্তব্য রাখেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব আমিরুল হক আমিন, অন্যান্য মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় নেতা আনোয়ার আলী, শাহানা ফেরদৌসী লাকী, সাব্বাহ আলী খান কলিন্স, কামরুল হাসান, নগর নেতা কিশোর রায়, তাপস কুমার রায়, হাজী পিনচু প্রমুখ। বক্তরা বলেন, মে’ দিবস শ্রমিকের অধিকার প্রতিষ্ঠার এক তাৎপর্যময় সংগ্রামের দিন। শ্রমিকের ঐক্যবদ্ধ ও সংগঠিত আন্দোলন আটঘন্টা শ্রমের অধিকার আদায় করেছিল। শ্রমিকদের অধিকার আদায় করতে হলে সংগঠনের কোনো বিকল্প নেই। তাই শিল্প, কলকারখানা, প্রতিষ্ঠানসহ অসংগঠিত সর্বক্ষেত্রে শ্রমিক ইউনিয়ন গড়ে তুলতে হবে। সকল বাধা উপেক্ষা করেই শ্রমিকদের আইনগত অধিকার বাস্তবায়ন করতে হবে। দেশে ৮৫% অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমজীবীদের জন্য কোনো মজুরী কাঠামো বা জাতীয় নি¤œতম মজুরি নেই। বক্তারা বলেন, দ্রব্যমুল্যের উর্ধ্বগতির কারণে বর্তমান মজুরীতে জীবন চলেনা। তারা অবিলম্বে জাতীয় নি¤œতম মজুরি ২০ হাজার টাকা ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন। বক্তারা সংসদে ‘অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা’ বিল উত্থাপনের সমালোচনা করে বলেন, এই আইন তৈরী হচ্ছে শ্রমিকের শ্রমিকের ধর্মঘট করার অধিকার কেড়ে নেয়ার জন্য, এটা মালিদের স্বার্থে। এটা হতে দেয়া যাবে না। তারা এই বিল প্রত্যাহারের দাবী জানান। সমাবেশে আইএলও কনভেনশন ৮৭ ও ৯৮ অনুযায়ী শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার ও নিরাপদ কর্মক্ষেত্র নিশ্চিত করার জন্য সরকারের নিকট দাবি জানানো হয়। সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন মিছিল সহকারে পল্টন মোড়ে শ্রমিক-কর্মচারী ঐক্য পরিষদের সমাবেশে ও মিছিল অংশগ্রহণ করে।

Share.